বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:২৮ পূর্বাহ্ন

আমাদের নৌকা দেয়নি বৈঠা দিয়েছেন-নিক্সন চৌধুরী

শেখ সাদী খান / ৪৮ Time View
Update : সোমবার, ২৯ জানুয়ারী, ২০২৪

জনগণ আমাদের বিশ্বাস করে ভালোবেসে ভোট দিয়েছে। আমরা এই ৬২ জন যোদ্ধা। জনগণকে আমরা বুঝিয়েছি আমাদেরকে নৌকা দেয়নি কিন্তু আমাদের বৈঠা দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন।

গতকাল রবিবার (২৮ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন।

মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন বলেন,স্বতন্ত্র বড় ব্যাপার না। ৬২ জন আমরা যোদ্ধা। বিষয়টা হল জনগণ যাকে তার সেবা করার সুযোগ দেবে সে স্বতন্ত্র হোক,বিরোধী দল হোক আর সরকারি দলই হোক সে যেখানেই হোক জনগণের ম্যান্ডেটটাই হল বড় কথা।

নিক্সন চৌধুরী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী পরিস্কার বলে দিয়েছেন, যে নির্বাচনের পর কোন এলাকায় সন্ত্রাস দেখতে চাননা, আগামীকাল থেকে কোথাও কোন সন্ত্রাস, অগ্নিসংযোগ,গন্ডগোল যেন না হয় সে ব্যাপারে স্পষ্ট নির্দেশ দিয়ে দিয়েছেন । যদি কোন রকম বিশৃঙ্খলা হয় তাহলে কোনভাবেই শেখ হাসিনা বরদাশত করবেন না বলে সবাইকে সতর্ক করে দিয়েছেন।

নিক্সন আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে একা উদ্দেশ্য করে কিছু বলেননি। উনি সবাইকে উদ্দেশ্য করেই বলেছেন, এই ৬২ জনই জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। জনগণ অনেক স্বপ্ন দেখে,আশা ভরসা করে নির্বাচিত করেছে, আপনারা সংসদে গঠনমূলক আলোচনা করবেন এবং সরকারের সমালোচনা করবেন সরকারের যদি কোন অন্যায় হয়।

নিক্সন আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন,আপনাদের একটা দিক ভালো, সেটা হল সরকারি দলীয় এমপিরা সরকারের সমালোচনা করতে পারেনা, এটা সংবিধানে নাই কিন্তু আপনারা এমন একটা পজিশনে এসেছেন আপনারা সরকারের সব সমালোচনা করতে পারবেন।

তিনি আরও বলেন, আমি বলেছি যে,আমরা ছাত্র রাজনীতি থেকে ছাত্রলীগ, যুবলীগ করে জেল-জুলুম হামলা-মামলা খেয়ে আজ এখানে এসেছি।

স্বতন্ত্র প্রার্থী নিক্সন চৌধুরী আরও বলেন আমাদের বক্তব্য দেয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য দিয়েছেন সেই বক্তব্যে উনি দিকনির্দেশনামূলক কথা বলেছেন। যারা নতুন সংসদ সদস্য হয়েছেন তাদেরকে সংসদের বিষয়ে পড়াশোনা করতে এবং সংবিধান সম্পর্কে পড়তে বলেছেন,ভালো পার্লামেন্ট হতে বলেছেন।

দেশের জন্য কাজ করতে বলেছেন যেটা স্থানীয়ভাবে সুবিধা হবে সেই সুবিধা আগে দেখতে হবে। আর দূর্নীতির ব্যাপারে জিরো টলারেন্স। কেউ কোন দুর্নীতি করলে মেনে নেয়া হবে না।

স্বতন্ত্র হোক, বিরোধী দল হোক যারা জনগণের জন্য কাজ করে তাদের কথা প্রধানমন্ত্রী শোনেন। জনগণের কথা ভেবেই প্রধানমন্ত্রী আমাদেরকে সমানভাবেই দেখেন। স্বতন্ত্র বড় ব্যাপার না৷


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর