সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
হিটস্ট্রোক থেকে বাঁচতে করণীয়  দু’দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ঢাকা আসছেন কাতারের আমির বিএনপি তাদের দল এবং দেশের গণতন্ত্র দুটোই ধ্বংসের চেষ্টা চালাচ্ছে : ড. হাছান মাহমুদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব প্রতিহত করতে স্থায়ী কমিটির নির্দেশনা খাদ্য সামগ্রী অপচয় রোধে পরামর্শ দিয়েছে সংসদীয় কমিটি ২৬ এপ্রিল ঘিরে শঙ্কা: আ. লীগ-বিএনপি ফের মুখোমুখি! শুক্রবার শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ করবে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ হাসপাতালে পর্যাপ্ত শয্যা খালি রাখার নির্দেশ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় আমরা সবসময়ই প্রস্তুত : প্রধানমন্ত্রী ‘হতাশায় নিমজ্জিত বিএনপি নেতাদের বোধশক্তি লোপ পেয়েছে: ওবায়দুল কাদের

শেষ মুহূর্তের গোলে রিয়ালকে রুখল অ্যাতলেটিকো

স্পোর্টস ডেস্ক / ৪৫ Time View
Update : সোমবার, ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

স্পেনের মাদ্রিদ নগরীর দুই প্রতিদ্বন্দ্বীর হাইভোল্টেজ ম্যাচ হয়েছে প্রায় সমানে সমান। ম্যাচের ফলটা কেউ পক্ষে নিতে পারল না। যদিও ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজানোর আগপর্যন্ত রিয়াল মাদ্রিদই এগিয়ে ছিল। কিন্তু শেষ সময়ের গোলে একেবারে পাতে রাখা খাবার ছিনিয়ে নেয় অ্যাতলেটিকো। ফলে ১-১ ড্র নিয়ে রিয়াল-অ্যাতলেটিকোর ম্যাচটি শেষ হয়েছে।

গতকাল (রোববার) রাতে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ছিল রিয়ালের পক্ষে প্রতিশোধের রাত। কিন্তু তা আর নিতে পারল কই! চলতি মৌসুমে আগের তিন দেখায় তাদের পরাজিত করেছিল অ্যাতলেটিকো। যার মধ্যে একটি ছিল কোপা দেল রে–র শেষ ষোলো থেকে ছিটকে দেওয়া ম্যাচ।

রিয়ালের পক্ষে এদিন ভিনিসিয়ুস জুনিয়রের বদলে নামা ব্রাহিম দিয়াজ এবং অ্যাতলেটিকোর মার্কোস লরেন্তে গোল করেছেন। লস ব্লাঙ্কোসদের ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ম্যাচ পূর্ববর্তী অনুশীলনে কাঁধের ব্যথা ওঠায় খেলতে পারেননি। বল দখলে অবশ্য রিয়ালই ম্যাচজুড়ে এগিয়ে (৫৫ শতাংশ) ছিল। তবে শট নেওয়ায় দু’দল প্রায় ‘আঠার-কুড়ি’। রিয়াল ১৭ শটের মধ্যে ৪টি লক্ষ্যে রাখতে সক্ষম হয়েছে। অন্যদিকে, অ্যাতলেটিকোর ১০ শটের ৫টিই ছিল লক্ষ্যে।

ঘরের মাঠে স্বাগতিকরা শুরু থেকেই ছিল আগ্রাসী। প্রথম পাঁচ মিনিটেই তারা গোলের উদ্দেশ্যে তিনটি শট নেয়, যদিও কোনোটিতেই প্রতিপক্ষ গোলরক্ষককে সেভাবে পরীক্ষায় ফেলতে পারেনি। অ্যাথলেটিকোও শুরু থেকে তাদের চিরচেনা জমাট রক্ষণ গড়ে তোলে। তবে সেই রক্ষণে চিড় ধরে ২০তম মিনিটে। ডি-বক্সে দুইবার বল বিপদমুক্ত করার সুযোগ পেয়েও তারা ক্লিয়ার করতে পারেনি। লুকাস ভাজকেস দ্বিতীয় দফায় চেষ্টা করেন জুড বেলিংহ্যামকে খুঁজে নেওয়ার; কিন্তু প্রতিপক্ষের একজনের পায়ে লেগে বল পেয়ে যান ব্রাহিম দিয়াজ। চিপ শটে তিনি বলে জালে পাঠান।

এগিয়ে থাকা রিয়ালের লিড দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ভেঙে দেয় নগর প্রতিদ্বন্দ্বীরা। আঁতোয়ান গ্রিজমানের কর্নারে পাওয়া বল দারুণ হেডে পেছনের পোস্ট দিয়ে জালে জড়ান স্টেফান সাভিচ। কিন্তু অফসাইডে কাঁটা পড়ে মুহূর্তেই তাদের উল্লাস থেমে যায়। দু’দলই গতি বাড়াতে থাকে ধীরে ধীরে। তারই একপর্যায়ে ৬৬ মিনিটে রদ্রিগোর জোরালো শট রুখে দেন অ্যাতলেটিকো গোলরক্ষক। ৭৪ মিনিটে গ্রিজমানের ব্যকহিল পা দিয়ে রুখে দেন রিয়াল কিপার আন্দ্রে লুনিন।

এরপর আক্রমণ-প্রতি আক্রমণ চললেও কেউ আর গোলের দেখা পাচ্ছিল না। রিয়ালও প্রায় ধরেই নিয়েছিল যে তারা পূর্ণ তিন পয়েন্ট পেতে যাচ্ছে। কিন্তু চার মিনিট যোগ সময়ের তৃতীয় মিনিটে সব ওলটপালট; মেম্ফিস ডিপাইয়ের হেড পাস ডি-বক্সে পেয়ে হেডেই ক্রসবার ঘেঁষে ঠিকানা খুঁজে নেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার ইয়োরেন্তে। শেষের বাঁশি বাজার আগেই প্রতিপক্ষ শিবিরে উল্লাস শুরু। সমতা টেনে রিয়ালকে ঠেকিয়ে দিল অ্যাতলেটিকো।

ড্র করেও অবশ্য লিগ টেবিলের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে কার্লো আনচেলত্তির দল, ২৩ ম্যাচে ১৮ জয় ও চার ড্রয়ে তাদের পয়েন্ট ৫৮। সমান ম্যাচে ২ পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে জিরোনা। অ্যাতলেটিকো ৪৮ পয়েন্ট নিয়ে আছে চারে। সাবেক চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা ৫০ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে।

এমআর


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর