বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৬:০০ পূর্বাহ্ন

মুখের ত্বকের জন্য অ্যালো ভেরা উপকারী

লাইফস্টাইল ডেস্ক / ৩৭ Time View
Update : সোমবার, ৬ মে, ২০২৪
ছবি: পিক্সাবে

রোদে পোড়াভাব কমাতে অ্যালো ভেরা অনন্য।

এছাড়াও ত্বকের নানান সমস্যা- ব্রণ, ফুসকুড়ি, জ্বলুনি বা চুলকানি কমাতেও অ্যালো ভেরার নির্যাস চমৎকার কাজ করে।

মুখে কি অ্যালো ভেরা ব্যবহার করা যায়?

প্রশান্তিদায়ক ও আর্দ্রতা রক্ষাকারী গুণাগুণ থাকায় অ্যালো ভেরা ত্বক পরিচর্যার চমৎকার উপকরণ। নানান রকম প্রসাধনীতে অ্যালো ভেরার নির্যাস ব্যবহার করা হয়।

এই বিষয়ে রিয়েলসিম্পল ডটকমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ‘মোনা ডার্মাটোলজি’র প্রতিষ্ঠাতা ও নিউ ইয়র্ক’য়ের বোর্ড নিবন্ধিত ত্বক বিশেষজ্ঞ মোনা ফয়াড বলেন, “অ্যালো ভেরার আছে নানান উপকারিতা। এটা ত্বক আর্দ্র রাখে, প্রদাহে আরাম দেয়, ব্রণ কমায় এবং আরোগ্য লাভে সহায়তা করে।
তবে যেকোনো পণ্য ব্যবহারের আগে ‘প্যাচ টেস্ট’ করার পরামর্শ দেন এই ত্বক বিশেষজ্ঞ। এতে পণ্যের প্রতি সংবেদনশীলতা সম্পর্কে জানা যায়।

তিনি বলেন, “সামান্য পরিমাণ অ্যালো ভেরার জেল ত্বক যেমন- কবজি বা কনুইয়ে ব্যবহার করে ২৪ ঘন্টা অপেক্ষা করে দেখতে হবে কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেয় কিনা। যতি ত্বক সংবেদনশীল হয় তাহলে লালচেভাব, জ্বালাপোড়া সমস্যা দেখা দেবে।”

ত্বকের যত্নে অ্যালো ভেরার উপকারিতা
প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের যত্ন নিতে প্রয়োজনীয় প্রায় সকল গুণাবলী অ্যালো ভেরায় বিদ্যমান। যেমন-

• জ্বলুনি এবং প্রদাহে আরাম দেয়।

• এতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ভিটামিন এ, সি এবং ই- যা ত্বককে ফ্রি রেডিকেলের কারণে হওয়া ক্ষয় থেকে রক্ষা করে।

• প্রদাহনাশক গুণাগুণ থাকায় এটি ত্বকের পোড়া ও লালচে ভাব কমাতে সহায়তা করে।

• অ্যালো ভেরার নির্যাস চিটচিটেভাব ছাড়াই ত্বক আর্দ্র রাখে।

• এতে থাকা ব্যাক্টেরিয়া-নাশক উপাদান ত্বকের ব্রেকআউট কমায় এবং আরাম প্রদান করে।

• কাটা, ক্ষত, পোড়াভাব বা অন্যান্য ক্ষত আরোগ্য লাভে অ্যালো ভেরা উপকারী।

• লোমকূপ সংকুচিত করতে এবং ত্বকে মসৃণভাব ফুটিয়ে তুলতে পারে।

মুখে অ্যালো ভেরা ব্যবহারের পন্থা

তিনটি ভিন্ন উপায়ে অ্যালো ভেরা মুখের ত্বকে ব্যবহার করা যায়।

প্রথমত, সরাসরি অ্যালো ভেরার পাতার নির্যাস। দ্বিতীয়ত, যে কোনো প্যাকের সাথে মিশিয়ে। আর তৃতীয়ত, অ্যালো ভেরা সমৃদ্ধ প্রসাধনী ব্যবহারের মাধ্যমে।

সরাসরি ব্যবহার

ক্যালিফোর্নিয়ার ‘ইএম স্কিন’য়ের প্রতিষ্ঠাতা, রূপবিশেষজ্ঞ এরিকা মেরি গ্যাট বলেন, “অ্যালো ভেরার পাতা সরাসরি ব্যবহার করা সবচেয়ে বেশি কার্যকর।”

অ্যালো ভেরার পাতা টুকরা করে কেটে জেল বের করে সরাসরি ত্বকে ব্যবহার করা যায়।

এই নির্যাস যতটা সম্ভব বের করে একটা পাত্রে রেফ্রিজারেটরে সংরক্ষণ করা যায়। এটা বাড়তি আরাম দিতে সাহায্য করে। এই পদ্ধতিতে খাঁটি, তাজা ও কোনো সংরক্ষক ছাড়া সম্পূর্ণ প্রাকৃতিকভাবে অ্যালো ভেরা ব্যবহার করা যায়।

অন্য উপাদানের সাথে মিশিয়ে ব্যবহার

রূপচর্চায় অন্যান্য উপাদানের সাথে অ্যালো ভেরা মিশিয়ে ব্যবহার করা যায়। স্ক্রাব করার পাশাপাশি মসৃণতা বজায় রাখতে, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সেরাম তৈরি করতে ভিটামিন সি যোগ করে নিতে পারেন অথবা এক টেবিল-চামচ মধুর সঙ্গে অ্যালো ভেরার জেল মিশিয়ে ব্রণনাশক ফেইস মাস্ক তৈরি করা যায়।

অ্যালো ভেরা সমৃদ্ধ প্রসাধনী

বাজারে অ্যালো ভেরা সমৃদ্ধ নানান প্রসাধনী পাওয়া যায় যা ত্বকের আর্দ্রতা রক্ষা করতে ও আরাম প্রদানে সহায়তা করে। এই ধরনের প্রসাধনী ব্যবহারের মাধ্যমেও রূপচর্চায় অ্যালো ভেরা যোগ করা যায়।

সোনালী বার্তা/এমএইচ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর