রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১০:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনাম
দেশের এক কোটি মানুষ মাদকাসক্ত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমার বাসায় কাজ করেছে, সেও এখন ৪০০ কোটি টাকার মালিক: প্রধানমন্ত্রী জাতীয় পার্টির মধ্যে দ্বিধা-বিভক্তি হতে দেব না: রওশন এরশাদ তিন হাজার বাংলাদেশি কর্মী নেবে ইইউভুক্ত চার দেশ : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইজিবাইকের ধাক্কায় ডিউটিরত পুলিশ কনস্টেবল নিহত বাংলাদেশ ও থাইল্যান্ডের মধ্যে বাণিজ্য সম্প্রসারণে আগ্রহী প্রধানমন্ত্রী কোটাবিরোধী আন্দোলনকারীদের হুঁশিয়ারি প্রধানমন্ত্রীর অসুস্থ মানুসিকতার মানুষের সমালোচনায় কিছু যায় আসে না: প্রধানমন্ত্রী উৎসব ছাড়া বড় তারকাদের সিনেমা কানাডাকে টাইব্রেকারে হারিয়ে কোপায় তৃতীয় উরুগুয়ে

বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে যত রেকর্ড

স্পোর্টস ডেস্ক / ৪৭ Time View
Update : রবিবার, ২ জুন, ২০২৪

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শুরুটাই হলো বেশ জমজমাট। যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা ম্যাচে আলো ছড়িয়েছেন অ্যারন জোন্স। ১৯৫ রান তাড়া করে যুক্তরাষ্ট্রকে জয় এনে দিয়েছেন তিনি। ৪০ বলে ৯৪ রানের ইনিংসে জোন্স নিজেও গড়েছেন বেশ কিছু রেকর্ড।

জোন্সের ব্যক্তিগত রেকর্ডের খাতায় তার সামনে আছেন কেবল ক্রিস গেইল। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১১৭ রান করেছিলেন ক্যারিবীয় তারকা। এরপর জোন্সের ৯৪ই এখন সর্বোচ্চ। আরও একটি রেকর্ডেও গেইলের পরই নিজের নাম লিখিয়েছেন জোন্স।
কানাডার বিপক্ষে ৪০ বলে তার অপরাজিত ৯৪ রানের ইনিংসে ছক্কা ছিল দশটি। মাত্র দ্বিতীয় ব্যাটার হিসেবে বিশ্বকাপে এক ইনিংসে ১০টির বেশি ছক্কা হাঁকানোর কীর্তি গড়লেন জোন্স। এর আগে ২০১৬ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১১ ও ২০০৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১০টি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন গেইল।

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত সংগ্রহও এখন জোন্সের। ২০২২ সালে জার্সির বিপক্ষে তার সতীর্থ স্টিভেন টেইলরের করা ১০১ রান সর্বোচ্চ দেশটির। যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে ১০টি ছক্কা টি-টোয়েন্টিতে অনুমিতভাবেই তাদের সর্বোচ্চ, এর আগে কোনো ব্যাটার এক ইনিংসে পাঁচটি ছক্কাও হাঁকাতে পারেননি।

অপরাজিত ৯৪ রান করার পথে স্রেফ ২২ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন জোন্স। যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে এটিই সবচেয়ে দ্রুততম। এতদিন এই রেকর্ডটি ছিল স্টিভেন টেইলরের, কানাডার বিপক্ষে হিউস্টনে এ বছরই ২৪ বলে হাফ সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজের প্রথম ম্যাচে হাফ সেঞ্চুরি করাদের মধ্যে তৃতীয় দ্রুততম জোন্স। এই তালিকায় সবার উপরে বাংলাদেশের মোহাম্মদ আশরাফুলের নাম। স্রেফ ২২ বলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হাফ সেঞ্চুরি এসেছিল তার ব্যাট থেকে, ২১ বলে কেনিয়ার বিপক্ষে ফিফটি ছুয়েছিলেন মাহেলা জয়াবার্ধানে।

কানাডার দেওয়া ১৯৫ রান তাড়া করা যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ছিল বেশ কঠিন। এর আগে কখনো এত রান তাড়া করেনি তারা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ রান তাড়া করার রেকর্ড। ২০১৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ইংল্যান্ডের ২৩০ রান ও প্রথম বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার ২০৬ রান তাড়া আছে প্রথম দুটি স্থানে।

এদিন আইসিসির সহযোগী সদস্য দেশ হিসেবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সবচেয়ে বড় দলীয় সংগ্রহের রেকর্ড গড়েছে তারা। এই ম্যাচেই ৫ উইকেট হারিয়ে কানাডার করা ১৯৪ রানের ইনিংসটি ছিল সর্বোচ্চ। কিন্তু রান তাড়ায় নেমে ৩ উইকেটে ১৯৭ রান করে ফেলে যুক্তরাষ্ট্র, এখন এটিই সর্বোচ্চ। এ ম্যাচের আগে ২০১৪ বিশ্বকাপে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে নেদারল্যান্ডসের করা ৪ উইকেটে ১৯৩ ছিল এতদিন সহযোগী দেশগুলোর মধ্যে বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ।

সোনালী বার্তা/এমএইচ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর