বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০২:৪০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
রাতেই সারা দেশে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট চালু হবে: পলক এভাবে বাংলাদেশ মিশন শেষ করতে হবে ভাবিনি: পিটার হাস বিএনপি-জামায়াত অহিংসতার নামে সহিংস আন্দোলন চালিয়েছে : জয় আগামীকাল থেকে স্বল্প দূরত্বে ট্রেন চলবে মোতায়েনরত সেনাসদস্যদের কার্যক্রম পরিদর্শন সেনাপ্রধানের মাঠে অনুপস্থিত নেতাদের তালিকা তৈরি হবে: ওবায়দুল কাদের শতভাগ নিরাপত্তা নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে পারছি না: শিক্ষামন্ত্রী বিএনপি এখনো ধ্বংসের সুরে কথা বলছে : ওবায়দুল কাদের আপনারাই যখন বলবেন আমরা স্বস্তি অনুভব করছি, তখনই কারফিউ প্রত্যাহার করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মামলার চার্জশিট পাওয়ার পর ব্যবস্থা নেওয়া হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ইউক্রেনকে বোমার আক্রমণ প্রতিহত করতে সক্ষম এমন যুদ্ধবিমান দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক / ২৪ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই, ২০২৪

এফ-সিক্সটিন যুদ্ধবিমানের প্রথম চালানটি ইউক্রেনের পথে রয়েছে। বোমার আক্রমণ প্রতিহত করতে সক্ষম এই যুদ্ধবিমানগুলো। আসন্ন গ্রীষ্মেই এই বিমানগুলো যুদ্ধ ক্ষেত্রে ব্যবহার করবে ইউক্রেনের বাহিনী।

বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে চলমান ন্যাটো সম্মেলনে এক বিবৃতি প্রকাশ করেছে হোয়াইট হাউস। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

বিবৃতিতে নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী ডিক শুফ এবং ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী মেট ফ্রেডেরিকসেন বলেছেন—ইউক্রেনের পাইলটদের টানা কয়েক মাসের প্রশিক্ষণ এবং দেশগুলোর মধ্যে রাজনৈতিক আলোচনার পর কিয়েভের কাছে এফ-সিক্সটিনের হস্তান্তর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

দুই নেতা দাবি করেছেন, আসন্ন গ্রীষ্মেই এফ-সিক্সটিন ব্যবহার করে রুশ বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করবে ইউক্রেনের বাহিনী। যুদ্ধক্ষেত্রের চিত্র বদলে দেওয়ার জন্য ইউক্রেনকে ৮৫টি যুদ্ধ বিমান দেওয়া হচ্ছে। এর মধ্যে প্রথম চালান ইতোমধ্যেই ইউক্রেনের পথে রয়েছে।

দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ন্যাটো সম্মেলনে এফ-সিক্সটিন যুদ্ধবিমান নিয়ে একটি ঘোষণা আসবে এমনটি আগে থেকেই ধারণা করা হচ্ছিল। ধ্বংসাত্মক এই যুদ্ধবিমানের সাহায্যে ইউক্রেনের যোদ্ধারা রাশিয়ান গ্লাইড বোমার আক্রমণকেও ঠেকিয়ে দিতে সক্ষম হবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে প্রথম চালানে কতগুলো বিমান ইউক্রেনে যাচ্ছে সেই সংখ্যাটি জানা যায়নি।

এফ-সিক্সটিন যুদ্ধবিমানের প্রথম চালান ইউক্রেনের জন্য একটি দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়েছে। এই যুদ্ধবিমানের জন্য দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলদিমির জেলেনস্কি পশ্চিমা দেশগুলোর কাছে গত প্রায় ১৮ মাস ধরেই ধরনা দিচ্ছিলেন। অবশেষে প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন শুরু হওয়ায় ডেনমার্ক, নেদারল্যান্ডস এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন জেলেনস্কি। তিনি আশা করছেন—৮৫টি নয়, বরং আরও অনুদানের মাধ্যমে অন্তত ১৩০টি এফ-সিক্সটিন তিনি হাতে পাবেন।

জেলেনস্কি বলেন, ‘ইউক্রেনের বিমান প্রতিরক্ষাকে শক্তিশালী করতে এফ-১৬ ব্যবহার করা হবে। আমি আত্মবিশ্বাসী নৃশংস রুশ আক্রমণ থেকে ইউক্রেনীয়দের আরও ভালোভাবে রক্ষা করার জন্য তারা আমাদের সহায়তা করবে।’

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নেদারল্যান্ডস ও ডেনমার্ক ছাড়াও নরওয়ে এবং বেলজিয়ামও ভবিষ্যতে ইউক্রেনকে এফ-১৬ সরবরাহ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

১৯৭০-এর দশকে ডিজাইন করা এফ-১৬ যুদ্ধবিমান রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে কতটা কার্যকর হবে তা এখনো স্পষ্ট নয়। ইউক্রেনের আকাশ প্রতিরক্ষা প্রসারিত করার সময়, বিমান ঘাঁটিগুলোতে এই যুদ্ধবিমানগুলোকে রুশ হামলা থেকে সুরক্ষিত রাখাও বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ।

রাশিয়া দাবি করেছে, চলতি মাসেই তারা মাইরোডের একটি বিমানঘাঁটিতে ইস্কান্দার ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ইউক্রেনের পাঁচটি এসইউ-২৭ জেট ধ্বংস করে দিয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ঘোষণা করেছিলেন, ন্যাটো সদস্যরা চারটি প্যাট্রিয়ট অ্যান্টি মিসাইল ব্যাটারি সরবরাহ করবে। একই ধরনের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সরবরাহ করবে ইতালিও। এগুলো রাশিয়ার আক্রমণ থেকে ইউক্রেনের বিমানঘাঁটিগুলোকে রক্ষা করার জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

সোনালী বার্তা/এমএইচ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর